সরকারিভাবে কোয়েসের বিদায় কি ৩০শে এপ্রিল? জানতে পড়ুন…

Published by BADGEB Admin on

Last Updated 5:22 PM 28th April 2020 .

ইস্টবেঙ্গল ফুটবলারদের মে মাসের বেতন না পাওয়ার বিষয়টা নিয়ে তোলপাড় ফুটবল মহল। তবে কোয়েসের দাবি চুক্তির শর্ত মেনেই বেতন বন্ধ করা হচ্ছে এক মাস আগে যেহেতু সরকারিভাবে ফেডারেশন এপ্রিলেই মরসুমের সমাপ্তি ঘোষণা করে দিয়েছে। বেতন ছাড়াও ফুটবলারদের চিন্তার কারণ ছিল চুক্তির মধ্যে থাকা মেডিক্যাল ফেসিলিটির বিষয়টাও। প্রাথমিকভাবে তারা আশঙ্কিত হয়েছিলেন যে এপ্রিলেই চুক্তি শেষের অর্থ এডিশানাল ফেসিলিটি থেকেও বঞ্চিত হতে হবে তাদের। অনেক ফুটবলারই ম্যানেজমেন্ট কে এই বিষয় পুনর্বিবেচনার জন্য অনুরোধ করে।

তারপরেই সোমবার ফুটবলাররা আরো একটা মেল পান কোয়েসের পক্ষ থেকে। সেখানে বলা হয়েছে মে মাসের বেতন না দিলেও, ফুটবলারদের ফ্ল্যাটের ভাড়া এবং মেডিক্যাল ফেসিলিটির দিকটা আগের মতোই দেখবে তারা। তারা উল্লেখ করেন যে, বেতন ছাড়া বাকি সব রকমের ফেসিলিটি ফুটবলাররা পাবেন ৩১শে মে পর্যন্ত কিন্তু তারপরে তারা আর কোনো কিছুর দায়িত্বে থাকবেন না। এছাড়াও মেল মারফত জানিয়ে দেওয়া হয় বিদেশি ফুটবলারদের দেশে ফেরার খরচও বহন করবে কোয়েস। এই চিঠির পরেই একটা বিষয় পরিষ্কার হয়ে যায়, যে পূর্বনির্ধারিত সময়সীমা অনুযায়ী কোয়েসের হাতে দলের দায়িত্ব থাকবে ৩১শে মে পর্যন্ত। তার আগে তারা শুধু ‘Force Majeure’ নিয়মের ভিত্তিতে স্যালারি বন্ধ করলেও দলের বাকি সব দায়িত্ব নিজেদের হাতেই রাখছেন মে মাসের অন্তিম তারিখ পর্যন্ত।

কোয়েস ফুটবলারদের সঙ্গে এপ্রিল মাসেই আর্থিক চুক্তি শেষ করে দেওয়ার পরে নতুন প্রশ্ন উঠছে। যে ফুটবলারদের সঙ্গে কোয়েস ইস্টবেঙ্গলের আগামী বছরও চুক্তি আছে তাদের কি হবে? ইস্টবেঙ্গল রিক্রুটাররা তাদের মধ্যে অনেককেই রাখতে চাইছেন না সামনের বছরে দলে। তাদের মধ্যে এক মাত্র বিদেশি হিসাবে আছেন হেইমি সান্তোস কোলাডো। তার সাথেও এক বছরের চুক্তি বাকি আছে ক্লাবের। অবস্থা যা, তাতে যে ফুটবলারদের সাথে সামনের মরশুমে চুক্তি থাকলেও, রাখতে চাইছেন না লাল-হলুদ কর্তারা তাদের সঙ্গে কথা বলে বিষয়টা মেটাতে হবে। ৩১ শে মের পরে পুরো দায়িত্বই গিয়ে পড়বে নতুন ইনভেস্টর এবং ক্লাব কর্তাদের উপরে। ইচ্ছা না থাকলেও সেই ফুটবলারদের দায়িত্ব বহন করতে হবে লাল-হলুদ কর্তাদের এবং সেক্ষেত্রে একটা মীমাংসা করতে হবে যদি একান্তই না রাখা হয় সেই প্লেয়ারদের।


0 Comments

Leave a Reply

0 Shares
Copy link
Powered by Social Snap