অভিজ্ঞ গোলকিপারের খোঁজে লাল-হলুদ। সম্ভাব্য তালিকায় কারা?

Published by BADGEB Admin on

Last Updated 10:52 AM 19th May 2020 .

বহুদিন বাদে ভারতীয় ফুটবলে ইস্টবেঙ্গল নিজেদের আধিপত্য দেখাচ্ছে দল বদলের বাজারে। এখনো পর্যন্ত চব্বিশ জন ভারতীয় প্লেয়ারের নাম সরকারি ভাবে ঘোষণা করেছে ইস্টবেঙ্গল, তার মধ্যে তিনজন গোলরক্ষক। কিন্তু ওই তিনজনের মধ্যে একটা সাদৃশ্য আছে, তিনজনেই তরুণ এবং অভিজ্ঞতা কম। প্রাথমিকভাবে কর্মকর্তারা ভেবেছিলেন আর গোলকিপার না নেওয়ার কথা কিন্তু পরে বুঝতে পারেন যে, তিনজন অনিভিজ্ঞ গোলকিপারের উপর নির্ভর করে সারা মরশুম চলা ঝুঁকির হতে পারে। আর তার জন্যই সিদ্ধান্ত বদল এবং যথাক্রমে চতুর্থ এবং অন্তিম গোলকিপার নেওয়ার সিদ্ধান্ত কর্তাদের। চতুর্থ এই গোলকিপার যাতে একজন অভিজ্ঞ গোলকিপার হন, সেই বিষয়টাই দেখছেন কর্তারা। সব মিলিয়ে ৫-৬ জন গোলকিপারের সাথে কথা হলেও যে তিনজনের একজন আসতে চলেছে ধরে নেওয়াই যায় তাদের নাম আমরা জানাচ্ছি।

বিলাল খান : কেরালা ব্লাস্টার্স এর দ্বিতীয় গোলরক্ষক তিনি। পঁচিশ বছর বয়সী এই সাহসী গোলকিপার গত মরশুমে আইএসএলে খেলেছেন ৫ ম্যাচ। একটা ক্লিন সিট রাখেন এবং পাঁচটা গোল খান। যদিও তার সাথে ২০২২ পর্যন্ত চুক্তি আছে কেরালার তাই তিনজনের মধ্যে তার আসার সম্ভাবনা সব থেকে কম।

দেবজিত মজুমদার : বত্রিশ বছর বয়সী এই গোলকিপারের গত মরশুম একদমই ভালো যায়নি। খারাপ পারফরম্যান্সের জন্য মোহনবাগান দলের দ্বিতীয় গোলরক্ষক হয়ে যান তিনি, শঙ্কর রায় তার জায়গা নেয় যিনি এবারে আবার লাল-হলুদে। শুরুতেই দেবজিতের কাছে অফার ছিল লাল-হলুদের, কিন্তু তিনি তখন রাজি হননি। ভেবেছিলেন হয়তো অন্য দলও তার প্রতি আগ্রহ দেখাবে, কিন্তু আসতে আসতে তিনি আশাহত হতে থাকেন। মোহনবাগানের সাথে তার চুক্তি ৩১শে মে শেষ হয়ে যাচ্ছে এবং এটিকেও আর তাকে নিতে আগ্রহী নন। তাই তিনি নতুন করে কথা শুরু করেছেন লাল-হলুদের সাথে। তিনি সই করলেও সেটা সম্ভবত জানা যাবে জুনে।

রেহেনেশ টিপি : সূত্রের খবর অনুযায়ী লাল-হলুদ কর্তাদের প্রথম পছন্দ তিনি। অতীতেও লাল-হলুদে খেলে গেছেন এই গোলরক্ষক কিন্তু সেই সময় নানান বিতর্কে জড়িয়েছেন তিনি। সমর্থকদের কাছে যে খুব একটা পছন্দের পাত্র নন তিনি সেটা বলাই যায় তবে গত মরশুমে তিনি ছিলেন কেরালার প্রথম গোলরক্ষক। তার সাথে কেরালার চুক্তিও শেষ হয়ে যাচ্ছে এই মাসে, তাই লাল-হলুদ কর্তারা তার জন্য ঝাঁপিয়েছেন। কর্তারা আত্মবিশ্বাসী যে বিলাল বা রেহেনেশের মধ্যে অন্তত একজন কে তারা কেরালা থেকে আনতে পারবে। যদি রেহেনেশ কে একান্তই পাওয়া না যায় তবেই দেবজিত মজুমদার কে নেওয়া হবে বলে খবর।

এছাড়াও ইরানের দ্বিতীয় ডিভিশনের এক প্লেয়ারের সাথে এক প্রস্ত কথা হয়েছে লাল-হলুদের। সরকারিভাবে লকডাউন উঠলে তারপরেই সে বিষয়ে আলোচনা এগোবে। বিক্রম প্রতাপ সিংয়ের জন্য আল আউট গেলেও, তাকে পাওয়া বেশ মুশকিল হয়ে যাচ্ছে লাল-হলুদের জন্য। গিবসন সিং নিয়ে গুজব আলোড়ন সৃষ্টি হলেও, আমাদের কাছে অন্তত তার লাল-হলুদে আসার বিষয় কোনো খবর নেই। আপাতত উপরে উল্লেখিত তিনজন গোলরক্ষকের একজন, একজন অভিজ্ঞ সেন্ট্রাল ডিফেন্ডার, বিক্রম প্রতাপ সিং (যদিও আবারও উল্লেখ করছি যে তাকে পাওয়া খুব কঠিন) এবং একজন রাইট উইঙ্গারই মূল লক্ষ লাল-হলুদ কর্তাদের।


0 Comments

Leave a Reply

0 Shares
Copy link
Powered by Social Snap