কেমন হচ্ছে ইস্টবেঙ্গল দলগঠন? এখনো পর্যন্ত দলটাকে কেমন লাগছে? রইলো দলগঠন নিয়ে বিশ্লেষণ।

Published by BADGEB Admin on

Last Updated 11:50 PM 28th April 2020 .

সুদীপ ঘোষ, ব্যাডজেব ডট কম : লক ডাউনের আবহে ঘরে বসে থেকে থেকে সুররসিক বাঙালী গান শুনবে না তা আবার হয় নাকি? সুর যে বাঙালীর রক্তে! ঠিক যেমন ফুটবল!! সে একসময় ছিলো যখন জাতীয় দলের 80% – 90% প্লেয়ারই থাকতো বাংলার। কিন্তু সময় বদলেছে। গঙ্গা দিয়ে বয়ে গেছে অনেক জল। বদলেছে রাজা, বদলেছে রাজত্ব… বাড়ি বদলে হয়েছে ফ্ল্যাট… যৌথ পরিবার ভেঙে হয়েছে নিউক্লিয়ার পরিবার… হারিয়ে গেছে পিঠে হাত দিয়ে “তুই শুধু মন দিয়ে খেলে যা, সংসারের ভাবনা ভাবার জন্যে আমি আছি তো” বলা দাদু, জ্যেঠা, কাকা, দাদাদের মুখগুলো। কেরিয়ার সর্বস্ব-যুগের ইঁদুরদৌড়ে আর্থ সামাজিক চাপে বাঙালী নিউক্লিয়াস পরিবারের একমাত্র সন্তানের জীবনে এখন সবুজ মাঠের বদলে জায়গা করে নিয়েছে কোচিং ক্লাস। কিন্তু মননে? সেখান থেকে কি কাড়তে পেরেছে ফুটবলকে এই যান্ত্রিক জীবন? উত্তর একটাই…না…পারে নি…

আর পারেনি বলেই এই ভয়ঙ্কর করোনা বিধ্বস্ত সময়ে বিশ্বজোড়া মৃত্যু মিছিলের মাঝে দাঁড়িয়েও… আবার কতদিন লকডাউন বাড়লো… কিকরে ততদিন চলবে… লকডাউন ওঠার পরে পুরো মাইনা পাবো তো বা আদৌ কাজটা থাকবে তো… এমন হাজারো প্রশ্নে ভরা মধ্যবিত্ত জীবনে হাঁসফাঁস করতে করতেও যেন লক্ষ কোটি প্রাণ বাঁধা পড়েছে একটাই সুরে – “জার্সি মানেই আমার মা, আর তো কিছুই জানি না”

লক্ষ কোটি হৃদয়ের লাব ডুব শব্দে যেন শোনা যাচ্ছে শুধু একটাই প্রশ্ন – ইস্টবেঙ্গল এবার ISL খেলবে তো? কখনো নীতু সরকার, রাজা গুহর আশ্বাসবাণীকে আঁকড়ে ধরে ভেসে ওঠা তো পরক্ষনেই কিছু মিডিয়া আর কল্যাণ মজুমদারের কথায় হতাশার আঁধারে ডুবে যাওয়া – এই যেন হয়ে দাঁড়িয়েছে ফুটবলপ্রিয় বাঙালীর রোজনামচা। মনের মাঝে শুধুই
“আমায় ভাসাই লি রে আমায় ডুবাই লি রে…. অকূল দরিয়ায় বুঝি কূল নাই রে….” অবস্থা!! বিশ্বাস করা। ভরসা রাখা। এই চারটে শব্দই এখন সমস্ত ইস্টবেঙ্গল সমর্থকদের শেষ আশ্রয়। এছাড়া অবশ্য আর কিই বা করার আছে সমর্থকদের? তাই সেই বিশ্বাস আর ভরসাটুকুই না হয় রাখা যাক একটা বাক্যের ওপরে যে ইস্টবেঙ্গল ISL খেলবে। বিশ্বাস রাখা যাক যে EB+ হার মানাবেই Covid 19+ কে। যুগের সঙ্গে তাল মেলাতে না পেরে ইতিমধ্যেই যখন নিজেদের অস্তিত্ব বিসর্জন দিতে বাধ্য হয়েছে বাংলারই আর একটা দল…. (যাদের সাইনবোর্ডে Estd. 1911 র বদলে ঝুলছে Estd. 2020) তখন বাংলা ও বাঙালীর ফুটবল ঐতিহ্যকে রক্ষার দায় যে একা কুম্ভ ইস্টবেঙ্গলের কাঁধে। আর সেইজন্যেই EB+ এর সংক্ৰমনটা খুব জরুরি।

ইস্টবেঙ্গল ISL খেলবে বিশ্বাস রেখেই বরং একটু এখনো পর্যন্ত যে দল গঠন হয়েছে তার বিশ্লেষণ করে দেখা যাক কেমন হচ্ছে এবারের ইস্টবেঙ্গল দল। পুরো আলোচনাটাই এখনো পর্যন্ত হওয়া দলের নিরিখে এবং শুধুমাত্র ভারতীয় খেলোয়াড়দের নিয়ে। যদি ধরে নেওয়া যায় এবারের আইএসএল বিদেশী কমিয়ে বা বিদেশী ছাড়াই হবে সেক্ষেত্রে কেমন হতে পারে ইস্টবেঙ্গল দল?

GK = অতীত অভিজ্ঞতা খুব খারাপ। অন্তত আড়াইখানা আই লীগ হাতছাড়া হয়েছে এই পজিশনের দূর্বলতার জন্যে। রফিক আলী সর্দার বা শঙ্কর রায় নিঃসন্দেহে আগামী দিনের সম্পদ। কিন্তু এখনই ইস্টবেঙ্গলের হয়ে একনম্বর GK হয়ে ISL এ নামার জায়গায় যায় নি। সময় লাগবে। তাই অবশ্যই এই পজিশনে একজন অভিজ্ঞ GK দরকার। সে বিশাল হোক কি আলবিনো বা নিদেনপক্ষে একটা দেবজিৎ মজুমদার।

LB = ISL র জন্যে তৈরী বলা যেতে পারে। প্রথম পছন্দ অবশ্যই চুলোভা। পরিবর্ত হিসাবে কিগান পেরেরা (যদি ফিট থাকে), আম্বেকার নিয়ে তৈরী ইস্টবেঙ্গলের বামপন্থী রক্ষণভাগ।

CB = গুরতেজ – ইরশাদ। ঠিক আছে। বিশেষ করে ইরশাদকে খানিক এগিয়েই রাখা যেতে পারে। সঙ্গে Arrows এর হরনি পাম আর আকাশ মিশ্র জুটিকে নিলে আগামী 5 বছর ইস্টবেঙ্গলের ডিপ ডিফেন্স নিশ্চিন্ত। চোট না থাকলে ISL র অভিজ্ঞতা সম্পন্ন রানা ঘরামিও কিন্তু ভালো বিকল্প হতে পারে।

RB = এখনো পর্যন্ত বিগ জিরো। প্রথম টিমে রাখার মত তো নয়ই এমনকি পরিবর্ত হিসাবে আসার মতও কাউকে এখনো নিতে পারেনি কর্তারা। আশুতোষ বা বাগুই এর মধ্যে একজনকে দরকার প্রথম পছন্দ হিসাবে। পরিবর্ত থাকুক Arrows এর সৌরভ মেহের বা চার্চিলের পনিফ ভাজ। নর্থ ইস্টের রাকেশ প্রধান দুদিকেই খেলতে পারে। নিলে ইস্টবেঙ্গলের অপশন বাড়বে।

LM = এখনো প্রথম একাদশে আসার মত কেউ রিক্রুট হয় নি। 4’5″ র ব্রেন্ডনকে নিয়ে আর যাই হোক ISL এর স্বপ্ন না দেখাই ভালো। শেখ ফৈয়াজ বা নিখিল কদম কে দরকার। দুজনেরই দুটো পাই চলে। ব্যাক আপে তো রইলোই বিকাশ জাইরু।

CM = এখনো পর্যন্ত ইস্টবেঙ্গলের সবথেকে সংগঠিত বিভাগ। শেহনাজ, লুয়াং, রিকি কে নিয়ে গড়া CDM এখনি মাঠে নামার জন্যে তৈরী। এরসঙ্গে সাহিল যোগ হলে তো কথাই নেই। বরং CAM এর অভাব রয়েছে। Arrows এর থেকে গিবসন সিং খুব ভালো চয়েস হবে এখানে। সঙ্গে আর একজন একটু অভিজ্ঞ কেউ। তাই বলে লোবোকে এরমধ্যে না জড়ানোই ভালো। ওনার কবে ইচ্ছা হবে মাঠে নামার বা কবে নিজেকে চোটমুক্ত ভাববেন সেটাই অনেক বড় প্রশ্ন মাঠে নেমে কেমন খেলবেন তার থেকেও।

RM = জিরো। বিগ জিরো এখনো পর্য্যন্ত। সবথেকে বড় কথা এই পজিশনে নেওয়ার মত প্লেয়ারও আর বিশেষ কেউ নেই। তাই কম পয়সাতে বাজার করার অভ্যাস ত্যাগ করে ইস্টবেঙ্গলের উচিত ডানমাউইয়ার জন্যে অল আউট ঝাঁপানো সে যত টাকাই লাগুক না কেন। ব্যাক আপ হিসাবে থাক তুলনামূলক কম বাজেটে সঞ্জু প্রধান। এতে দুজনের বাজেটের এভারেজ করলে সেটা কিন্তু মোটের উপর খুব বেশি হবে না ISL এর নিরিখে।

FW = বলবন্ত নিঃসন্দেহে খুবই ভালো রিক্রুট। সঙ্গে বিক্রমপ্রতাপ বা শুভ ঘোষের মধ্যে অন্তত একজনকে চাই। দল দাঁড়িয়ে যাবে শুধু না দলের ভবিষ্যৎ নিউক্লিয়াসও তৈরী হয়ে যাবে।

মোদ্দা কথা একজন করে ভারতীয় GK, RB, RM, LM, FW – এই 5 টা প্লেয়ার হলেই কিন্তু ইস্টবেঙ্গলের ভারতীয় ISL একাদশ তৈরী। আর এই 5 টা প্লেয়ারের জন্য কর্মকর্তাদের কৃপণতা ছেড়ে দরাজ হতে হবে। এখনো পর্যন্ত কিন্তু দলগঠন ঠিকঠাক দিকেই (ISL ) এগোচ্ছে। তবে উপরের 5টা পজিশনে ভালো কাউকে না নিয়ে রিজার্ভ টিমের জন্যে নেওয়া কাউকে গুঁজে দিয়ে সস্তায় বাজিমাত করতে চাইলে কিন্তু মুখ থুবড়ে পড়ার সমূহ সম্ভাবনা।

আশা করা যায় কর্মকর্তারা সেটা হতে দেবেন না। ভালো কিছুই করবেন। সমস্ত ইস্টবেঙ্গল সমর্থকদের হৃদয়ে বেজে উঠুক ‘এ যে রক্তের সাথে রক্তের টান, স্বার্থের অনেক উর্দ্ধে’। আর সেই টানেই ছড়িয়ে পড়ুক EB+ সংক্ৰমন হৃদয় থেকে হৃদয়ে… আই লীগ থেকে ISL এ…..


0 Comments

Leave a Reply

0 Shares
Copy link
Powered by Social Snap