১৩ মে, ২০২০ : প্রতিদিনের দল বদলের খবর – বিষয় ইস্টবেঙ্গল ক্লাব।

Published by BADGEB Admin on

Last Updated 11:06 AM 13th May 2020 .

১৩ মে, ২০২০ : ব্যাডজেবের ডট কমের পক্ষ থেকে আমরা নতুন উদ্যোগ নিয়েছে সেটা হয়তো আপনারা ইতিমধ্যেই জেনে গেছেন, এই দল-বদলের মরশুমে চেষ্টা করবো আমরা প্রত্যেকদিন সকালে লাল-হলুদের দল গঠন নিয়ে কিছু খবর দেওয়ার। তবে কোনোদিন যদি কোনো খবর না থাকে, সে ক্ষেত্রে সেদিন আর এই প্রতিবেদনটা আমরা লিখবো না।

আজকের খবরগুলো জানিয়ে দি :

  • গতকাল রাতেই আমরা জানিয়েছিলাম যে লাল-হলুদের পথে অনিম মিলন সিং। তার সাথে লাল-হলুদের ১ বছরের চুক্তি হচ্ছে। তার এজেন্ট ইতিমধ্যেই জানিয়ে দিয়েছে যে তিনি লাল-হলুদের চুক্তিপত্রে সই করে দিয়েছেন। ২৪ লাখে এক বছরের জন্য তিনি লাল-হলুদের পথে।
  • আনাস নিয়ে আমরাই খবর করেছিলাম দুদিন আগে, বিষয়টা আবারও জানিয়ে রাখি, আনাসের এজেন্ট নিজে কথা চালাচ্ছে ক্লাবের সাথে। আনাস ইস্টবেঙ্গলে আসতে আগ্রহী, তবে যেহেতু দেশের সেরা তিন ডিফেন্ডারের মধ্যে একজন উনি, তাই চুক্তির অঙ্কটা যে নেহাত ছোট হবেনা সেটা বলাই যায়। আর সেই নিয়েই সম্ভবত পুরো বিষয়টা আলোচনা-স্তরে। তবে লাল-হলুদ কর্তারা একজন দেশীয় সেন্ট্রাল ডিফেন্ডারের খোঁজে রয়েছেন মরিয়া ভাবে।
  • সিকে ভিনিত, রিনো আন্ত, মহাম্মদ রফিক, মিলন সিং এদের সবার কাছেই লাল-হলুদের চুক্তি পত্র চলে গেছে। যে কোনো সময় এদের নাম ঘোষণা করবে লাল-হলুদ কতৃপক্ষ সরকারিভাবে। এবং কোনো ক্লাব যখন চুক্তিপত্র পাঠিয়ে দেয়, ধরে নেওয়া যায় তখুনি চুক্তি কনফার্ম কারণ প্লেয়ারের মত এবং সেটেলমেন্ট ছাড়া কখনো চুক্তিপত্র পাঠায়না কেউ। যেমন ধরুন মিলাম সিংয়ের ঘটনাটায় অনেকে লিখছে যে এখনো সই হয়নি, চুক্তি পত্র পাঠিয়েছে। চুক্তি পত্র অতটা সহজ জিনিস নয় যে সেটেলমেন্ট ছাড়াই যাকে তাকে পাঠিয়ে দেওয়া হয় এবং চুক্তিপত্র চলে যাওয়া মানেই বড় সর অঘটন না ঘটলে সেই প্লেয়ারটা ওই ক্লাবেই সই করে।
  • তবে মিলন সিংয়ের অন্তর্ভুক্তি কিছুটা প্রশ্নচিহ্ন তুলে দিল অদেও আর লিংডঃ আসবে কিনা সেই বিষয়। কারণ একই পজিশনে এমনিতেই অনেকগুলো প্লেয়ার নেওয়া হয়ে গেছে লাল-হলুদে। বর্তমানে লাল-হলুদের টার্গেট রাইট উইং, স্ট্রাইকার, এবং ডিফেন্ডার পসিশনে ভরাট করে। মাঝমাঠের কাজ মোটামুটি শেষ। আর এটা বলতে দ্বিধা নেই, বর্তমানে মিলন সিং অনেক ভালো ফর্মে আছে লিংডঃর থেকে। আমরা বলছিনা হবেনা, তবে এখনো যেহেতু কনফার্ম হয়নি এবং হটাৎ মিলন সিংয়ের অন্তর্ভুক্তি হলো, তাতে মনে করা হচ্ছে লিংডঃর আসার সম্ভাবনা কমে গেল।
  • গত কয়েকদিন ধরেই এটিকের রিজার্ভ টিমের ডিফেন্ডার অনিল চাবানের সাথে কথা চালাচ্ছে ইস্টবেঙ্গল। পূর্বে তিনি সেসা একাডেমির অধিনায়ক ছিলেন। তরুণ এই প্লেয়ারকে পেলে লাল-হলুদের বেঞ্চ যে স্ট্রং হবে, এবং কিছু তরুণ ফুটবলারের অন্তুর্ভুক্তিতে যে দলের ভারসাম্য আসবে বলাই যায়।
  • শুভ ঘোষ কে পাওয়া সম্ভব না ধরে নিলেও শেখ সাহিলের জন্য চেষ্টা চালাচ্ছে লাল-হলুদ। অন্যদিকে বিক্রম প্রতাপ, রিকি সাবঙদের ছাড়পত্র নিয়ে কিছু জটিলতা থাকায় বিষয়টাই উল্লেখযোগ্য এখনো কিছু ঘটেনি তবে চেষ্টা চলছে।

0 Comments

Leave a Reply

0 Shares
Copy link
Powered by Social Snap