ইস্টবেঙ্গলের আইএসএল খেলার সম্ভাবনার ইতি। ক্ষুব্ধ সমর্থকরা, হতাশা পিছন ছাড়বে কবে?

Published by BADGEB Admin on

Last Updated 7:50 PM 7th August 2020 .

যে ইস্টবেঙ্গল ক্লাব সাফল্যের সরণি ধরে এগিয়ে চলতেই অভ্যস্ত ছিল, সেখানে বহুদিন হলো আকাশ শুধুই ব্যর্থতার কালো মেঘে ঢাকা। দু’হাজার কুড়ির শুরুতে একটু একটু করে ইস্টবেঙ্গল সমর্থকরা আশায় বুক বাঁধতে শুরু করেছিলেন যখন ক্লাবের শীর্ষ কর্তা অভয়বানী নিয়ে জানিয়েছিলেন ‘কাগজে লিখে নিন, আমরা আইএসএল খেলবো!’

জানিনা উনি কি পরিস্থিতিতে দাঁড়িয়ে কি পরিকল্পনার সাথে কথাগুলো বলেছিলেন, প্রেক্ষাপট সে যাই হোক, আজকের দিনে দাঁড়িয়ে আরো একবার হতাশ হলেন ইস্টবেঙ্গল সমর্থকরা। খুব কুরুচিকর ভাষায় বললে হয়তো লিখতে হবে, আরও একবার ঠকানো হলো ইস্টবেঙ্গল সমর্থকদের! ঠকানো ছাড়া আর কিই বা বলা যায়, যেখানে লক্ষ লক্ষ সমর্থকের রাতের ঘুম উড়ে গেছে, যেখানে এত কিছুর পরেও তারা একটু আশার আলোর খোঁজে চাতক পাখিকেও হার মানাচ্ছেন। আর কত? আর কত সহ্য করবে ইস্টবেঙ্গল সমর্থকরা? ইস্টবেঙ্গল সমর্থক হওয়া কি অপরাধের? কি কারণে প্রত্যেক বছরে তারা কোনো না কোনো কারণে দেশের সেরা লীগ খেলা থেকে বঞ্চিত হবে? উত্তর কে দেবেন? কেউ নেই। কেউ নেই, সমর্থকদের উত্তর দেওয়ার। প্রশ্ন করা হলে, এই সামান্য প্রশ্ন করা হলেও বিরক্তির সুরে উত্তর আসে ‘কোরোনা নিয়ে বলুন!’ কোরোনা যদি এই সমাজকে আর্থিক আর সামাজিকভাবে শেষ করে থাকে, তাহলে ইস্টবেঙ্গল সমর্থকদের মানসিকভাবে ভেঙে দিচ্ছে দিনের পর দিন ক্লাবের এই ব্যর্থতা যেটা দেখতে তারা অভ্যস্ত নন।

মূল বিষয় ফেরা যাক এবার, ইস্টবেঙ্গলের এবছরে আইএসএল খেলার সম্ভাবনা দূর-দুরন্ত পর্যন্ত দূরবীন দিয়ে খুঁজলেও আর দেখা যাচ্ছেনা। বেশি দেরি নেই আর যখন সরকারিভাবে এটা জেনেও যাবেন ইস্টবেঙ্গল সমর্থকরা। মানসিকভাবে নিজেদের আবার প্রস্তুত করার পালা? তা ছাড়া আর কিই বা বলার আছে, কিই বা বলার থাকতে পারে। আর এর পরেও যদি ইস্টবেঙ্গল কোনোভাবে আইএসএল খেলে ফেলে তার একশো ভাগ কৃতিত্ব প্রাপ্ত থাকবে ইস্টবেঙ্গলের শীর্ষকর্তা দেবব্রত সরকারের কারণ এই জায়গায় দাঁড়িয়ে ইস্টবেঙ্গলের আর অন্য কোনো কর্তার পক্ষে এই অসাধ্য-সাধন করে সম্ভব না। যদিও বাস্তবের রুক্ষ জমি এটা, এখানে সিনেমার মতো অন্তম মুহূর্তে পটপরিবর্তন হয়না। তবে যদি ইস্টবেঙ্গল ব্যর্থ হয়, সে ক্ষেত্রে কিন্তু শুধু শীর্ষ-কর্তা নয়, এর দায়ে বর্তাবে ইস্টবেঙ্গলের পুরো কার্যকরী কমিটির উপরে।

দেওয়াল লিখন হয়তো এখুনি পড়তে পারছেন ইস্টবেঙ্গল সমর্থকরা আর তাই, তারা ভোকাল হতে শুরু করে দিয়েছেন, তাদের যাবতীয় ক্ষোভ উগড়ে দিচ্ছেন তারা প্রতিনিয়ত সোশ্যাল সাইটে।


0 Comments

Leave a Reply

0 Shares
Copy link
Powered by Social Snap