আগামী ৪৮ ঘন্টায় উঠবে লাল-হলুদ ঝড়! একে একে অন্তত চার বিদেশির নাম ঘোষণা।

সবার শেষে শুরু করেও সমস্ত কিছু সবাইকে পিছনে ফেলার একটা মরিয়া চেষ্টা চালাচ্ছে ইস্টবেঙ্গল ম্যানেজমেন্ট। ইতিমধ্যেই তারা তাদের পূর্বের তৈরি করা স্বদেশী ব্রিগেডে বেশ কিছু পরিবর্তন আনছেন দলকে আরো মজবুত করার লক্ষে। তবে, তাদের পাখির চোখ বিদেশিদের দিকেই কারণ ভারতীয় ফুটবলে মূলত বিদেশীরাই যে পার্থক্য গড়ে দেয় সেটা কারুর অজানা Read more…

জেজে কে দলে নিয়ে সেরা দেশীয় স্ট্রাইকিং লাইন-আপ তৈরি করলো ইস্টবেঙ্গল

জেজে লালপেকলুয়া নামটা ভারতীয় ফুটবল অনুরাগীর কাছে অত্যন্ত পরিচিত একটা নাম। বিগত কয়েক বছরে সুনীল ছাত্রীর পরেই যদি কেউ দেশের জার্সি গায়ে স্ট্রাইকিং লাইন-আপ কে ভরসা দিয়ে থাকে সব থেকে বেশি তবে সেটা জেজেই। আমাদের কাছে থাকা খবর অনুযায়ী, সেই জেজেই এবারে লাল-হলুদ জার্সি গায়ে চাপাবেন এবং চুক্তি হয়ে গেছে Read more…

বিড পেপার তুলে নিলো ইস্টবেঙ্গল, সরকারি ঘোষণা সময়ের অপেক্ষা!

চারদিকে নানান বিষয় গুঞ্জন, অনেকটা ইচ্ছাকৃত বিতর্ক তৈরি করা হচ্ছে অপরদিকে সেসবে কর্ণপাত না করে নতুন ইনভেস্টর কোম্পানি ‘শ্রী সিমেন্ট’ পরিকল্পনা অনুযায়ী এগিয়ে চলেছে লাল-হলুদে আইএসএল খেলাতে। ইতিমধ্যেই তারা দুই সদস্যের কোম্পানি গঠন করে ফেলেছিলেন সেপ্টেম্বরের পাঁচ তারিখ। এবার আরো এক ধাপ এগিয়ে গেলো তোড়জোড়, এফএসডিএল বিড ওপেন করার পরে Read more…

৫ই সেপ্টেম্বর, ২০২০ : আইএসএলের দলগঠন – বিষয় ইস্টবেঙ্গল ক্লাব।

৫ই সেপ্টেম্বর, ২০২০ : ব্যাডজেব ডট কম বলা যায় নতুন উদ্যম নিয়ে ফিরে এলো। শেষ বিশ বছরের সব থেকে বড় লড়াইটা হয়তো ইস্টবেঙ্গল জিতে নিলো, নিজের নামে এবছরেই আইএসএল খেলে। বাড়তি পাওনা? অবশ্যই শ্রী সিমেন্টের মতো এক ইনভেস্টর গ্রুপ যাদের হাতে আমাদের ভবিষৎ সুরক্ষিত বলেই মনে করেন লাল-হলুদ সমর্থক মহল। Read more…

হটাৎ ক্লাবে ‘ভোল্টাস বেকো’র হোর্ডিং কেন? জানতে পড়ুন।

হটাৎ ইস্টবেঙ্গল মাঠের চারদিকে ‘ভোল্টাস বেকো’র হোর্ডিং দেখে ইস্টবেঙ্গল সমর্থকরা উদগ্রীব হয়ে উঠেছেন। যথারীতি তারা ভাবতে শুরু করেছেন যে এই কোম্পানি হয়তো কোয়েসের ধাঁচে ক্লাবের ইনভেস্টর হয়েই আসছে। যদিও আসল বিষয়টা সেরকম কিছু না। বিষয় টাকে বলা হয় ‘গ্রাউন্ড স্পন্সরিং’। অঞ্জলি জুয়েলার্স বা শ্যাম সুন্দর জুয়েলার্সর ধাঁচেই এরাও ক্লাবের একটা Read more…

ইস্টবেঙ্গলের আইএসএল খেলার সম্ভাবনার ইতি। ক্ষুব্ধ সমর্থকরা, হতাশা পিছন ছাড়বে কবে?

যে ইস্টবেঙ্গল ক্লাব সাফল্যের সরণি ধরে এগিয়ে চলতেই অভ্যস্ত ছিল, সেখানে বহুদিন হলো আকাশ শুধুই ব্যর্থতার কালো মেঘে ঢাকা। দু’হাজার কুড়ির শুরুতে একটু একটু করে ইস্টবেঙ্গল সমর্থকরা আশায় বুক বাঁধতে শুরু করেছিলেন যখন ক্লাবের শীর্ষ কর্তা অভয়বানী নিয়ে জানিয়েছিলেন ‘কাগজে লিখে নিন, আমরা আইএসএল খেলবো!’ জানিনা উনি কি পরিস্থিতিতে দাঁড়িয়ে Read more…

শতবর্ষে দাঁড়িয়ে ক্লাব সচিবের সমর্থকদের উদ্দেশ্য বার্তা “ফোকটে ফুর্তি চলবেনা!” শুনে বিস্মিত সমর্থকরা।

বর্তমান পরিস্থিতিতে দাঁড়িয়ে ইস্টবেঙ্গল সমর্থককূল আই এস এলে যোগদান নিয়ে সদর্থক ঘোষণার জন্য উদগ্রীব। কিন্তু আশ্বাসবাণী তো দূর ,তার বদলে ক্লাব সচিব কল্যাণ মজুমদার প্যারালাল স্পোর্টস কে দেওয়া এক টেলিফোনিক সাক্ষাৎকারে কার্যত কাঠগড়ায় দাঁড় করালেন সমর্থকদের। সাক্ষাৎকারটিতে কল্যাণ বাবুকে আগামী মরসুমে ময়দানের ডার্বি নিয়ে জিজ্ঞাসা করা হলে জবাব দেন, তিনি Read more…

পরবর্তী প্রজন্ম তৈরি করছেন তিনি, সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে জানালেন ইস্টবেঙ্গল কর্তা।

আজকে সকলেই জানেন শতবর্ষ উপলক্ষে অনুষ্ঠান ছিল ক্লাবে। নিয়ম মেনেই আলমানাক উদ্বোধন করা হয়, তোলা হত পতাকা, উপস্থিতি ছিলেন প্রাক্তন ফুটবলার থেকে ক্রীড়ামন্ত্রী এবং সমাজের বিশিষ্টজনেরা। সেই অনুষ্ঠানের শেষেই সাংবাদিকদের অনুরোধে অল্প কিছুক্ষনের জন্য মুখোমুখি হন তিনি সংবাদমাধ্যমের।

স্বাভাবিকভাবে তার দিকে আইএসএল নিয়ে প্রশ্ন ছুটে আসে। তাতে তিনি বিরক্তি প্রকাশ করেন, জানান যে তিনি এবং ক্লাব ম্যানেজমেন্ট চেষ্টা করছেন তবে সেই বিষয় কিছু বলতে তিনি ইচ্ছুক নন। উল্লেখযোগ্যভাবে তারপরেই তিনি এই একই প্রশ্ন যাতে সাংবাদিকরা তাকে না করেন তার জন্য আর্জি জানান। তিনি আরো বলেন যে অনেক বিশিষ্ট লোকেরা তাদের পাশে আছেন এই উদ্যোগে।

তারপরে এবিপি আনন্দের এক সাংবাদিক তাকে প্রশ্ন করেন যে, ক্লাব কি পরবর্তী প্রজন্ম নিয়ে কিছু ভাবছে? ইয়াং ব্লাড ক্লাব ম্যানেজমেন্টে আনার বিষয় ক্লাব কি ভাবছে? তখনই দেবব্রত সরকার জানান যে তিনি নিজে নতুন প্রজন্ম তুলে আনার জন্য আগ্রহী। তিনি এই বিষয় উল্লেখ করেন সৈকত গাঙ্গুলী, রূপক সাহা এবং সুমন দাশগুপ্তের নাম এবং জানান যে ভবিষ্যতের কথা ভেবেই এনাদের কে ক্লাব প্রশাসনে নিয়ে আসা হয়েছে।

তার এই উদ্যোগকে সাধারণ সমর্থকরা খুব ভালোভাবে গ্রহণ করছেন। সাধারণ সমর্থকরা সৈকত বাবু, রূপক বাবু এবং সুমন বাবু কে খুব ভালোভাবেই চেনেন। তাদের অভিজ্ঞতা এবং আর্থিক দিক থেকে প্রতিষ্ঠিত হওয়ার ফলে তারা যে ভবিষ্যতে দক্ষতার সাথে ক্লাব চালাবেন এটা বলাইবাহুল্য। সমর্থকরা কিন্তু আশায় বুক বাঁধতেই পারেন নিজেদের ক্লাবের ভবিষৎ নিয়ে!

এই লিঙ্কে ঢুকলে পুরো ভিডিওটা আপনারা দেখতে পাবেন।

(more…)

ফেডারেশনকে দেওয়া চিঠির বিরুদ্ধে গেলেন এফপিএআই প্রেসিডেন্ট রেনেডি সিং।

সকালেই হটাৎ জানাজানি হয় যে ইস্টবেঙ্গলকে আইএসএল খেলতে দেওয়া হোক এই দাবিতে সরব হয়েছেন ভারতীয় ফুটবলারদের নিয়ে তৈরি হওয়া সংগঠন FPAI। তাদের ফেডারেশন এবং এফএসডিএলকে দেওয়া চিঠি প্রকাশ্যে আসতেই চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পরে। অদেও দাবিটা কতটা যুক্তিসঙ্গত বা ভারতীয় ফুটবলে এরকম ঘটনা আগে ঘটেছে কিনা সেটা নিয়েই উঠে যায় প্রশ্ন। তারপরেই Read more…

মার্জারের পথে কোনোভাবেই হাঁটবেনা ইস্টবেঙ্গল। চলছে জট-খোলার চেষ্টা। বাস্তবে কতটা সম্ভব?

লালহলুদ সমর্থকদের দিন কাটছে উৎকণ্ঠায়। সারা দেশ ধরে নিয়েছে ইস্টবেঙ্গলের এবারেও আইএসএল খেলা হলোনা, তবে সমর্থকরা যেন কিছুতেই এটা মন থেকে মানতে নারাজ। গর্জে উঠেছে ইস্টবেঙ্গল সমর্থকরা, উঠেছে সমালোচনার ঝড়, ফলে প্রচন্ড চাপে ইস্টবেঙ্গল কর্তারা। প্রসূন বাবুর কোম্পানির সাথে কথা ভেস্তে যাওয়ার পরেও আবার নতুন করে কর্তাদের উদ্যোগে শুরু হয়েছে Read more…